উদরগত মেদ অপসারণ করার কিছু উপায়।

আমি মোটামুটি নিশ্চিত যে সবাই তাদের উদরগত মেদ কমাতে আগ্রহী। আমি নিজেও অনেক বেশি আগ্রহী। কিন্তু মেদ তৈরি করা যত সহজ কাজ, তা অপসারণ করা মোটেই সহজসাধ্য  কাজ নয়। যাহোক, মেদ কমানো অনেক কারণে জরুরি। সবচেয়ে বড়ো কারণটি হলো, মেদ ভুঁড়ির কারণে পুরো শারিরীক গঠন অসুন্দর হয়ে উঠে। এছাড়াও এটি নানা রোগের কারণ হয়ে দাড়ায়। আমার নিজের মেদ দিনকে দিন এতোই বেশি রকম করে বেড়ে উঠছে যে, চিন্তায় চিন্তায় আমার ঘুমের পরিমাণ বেড়ে যাচ্ছে। দিন রাত খাচ্ছি আর ঘুমাচ্ছি। একটু কাজ করলেই হাপিয়ে উঠছি। আর যারা আমার মতো ২৪ ঘণ্টা বাসায় থাকো, এবং শারিরীক পরিশ্রমের কাজ থেকে নিজেকে যতদূর সম্ভব দূরে রাখো, তাদের জন্য জিনিসটা ভয়ংকর। কারণ তাদের মেদ বাড়তে শুরু করলে ওটা বাড়তেই থাকে। আমি খুবই চিন্তিত যে কোনদিন আমার আকৃতি ফুটবল হয়ে যায়। মোটা মানুষ খুব বেশি খারাপ নয় দেখতে, এমনকি আমি নিজেও একসময় মোটা হতে চেয়েছি, কিন্তু সমস্যা একটাই, সেটা হলো মেদ ভুঁড়ি। তুমি মোটা হও কোন সমস্যা নেই, যদি তোমার একটা মোটা পেট না থাকে, তাহলে তুমি যথেষ্ট্য সুন্দর দেখতে হবে। তো আমি কিভাবে মেদ ভুঁড়ি কমানো যায় তার উপর বেশ কিছু পড়াশোনা করে ফেললাম ইতিমধ্যে। তোমাদের সাথে শেয়ার করছি যাতে, যারা আমার মতো ভুঁড়িওয়ালা তারা আমার সাথে অংশগ্রহণ করতে পারো, ভুঁড়ি কমানোর প্রতিযোগিতায়। যার ভুঁড়ি যত তাড়াতাড়ি কমবে তার পয়েন্ট বেশি। আমি আশা করছি, আমার পয়েন্ট সবচেয়ে কম হবে।

১. যতটুকু খাও তার চেয়ে বেশি ক্যালোরি বার্ণ করো: আমি জানি তুমি যা খেতে পছন্দ করো তা তোমার পক্ষে না খেয়ে থাকা কষ্টকর। আমি তা পারি না। এক্ষেত্রে সহজ উপায় হলো, তুমি যা খাও সাধারণত, তাই খাবে, কিন্তু ইনটেক একটু কমাতে হবে আর যা খাও তার পুরোটাই খরচ করে ফেলতে হবে। তুমি যদি প্রতিদিন ১০০ ক্যালোরি বেশি খাবার খাও তাহলে তা তোমার ৫ কেশি ওজন বাড়িয়ে দেবে। কাজটি খুব বেশি কঠিন নয়, ব্যাপারটি এমন নয় যে তোমাকে না খেয়ে থাকতে হবে। তুমি খাও, কিন্তু খেয়াল রাখতে হবে যে, সেটি যেন কম ক্যালরি যুক্ত হয়। ক্যালরি হিশেব করার জন্য অনলাইনে প্রচুর হেল্প পাবে। তোমাকে শুধু ট্র্যাক রাখতে হবে যা খাচ্ছো, তা তোমার শরীরের চাহিদার চেয়ে কম। এই কাজটি করবে যখন তুমি মেদ কমাতে চাচ্ছ। যখন তোমার মেদ কমে ঠিক ঠাক হয়ে যাবে তখন শুধু অতিরিক্ত কিছু খাবে না, সেটি খেয়ার রাখলেই হবে।

২. নিয়মিত ব্যায়াম: এইটির কোন বিকল্প নেই। তোমাকে একটু ব্যায়াম করতেই হবে তোমার শারিরটাকে ঠিক ঠাক রাখতে হলে। তুমি যেহেতু কম খাচ্ছ, এবং একটু ব্যায়াম করলে মেদ গুলোকে বার্ণ করতে এটি সাহায্য করবে, এতে করে তুমি আরো তাড়াতাড়ি মেদ কমাতে পারবে। আমার পরামর্শ হলো, তুমি একটু হাটো প্রতিদিন। লিফট না উঠে তুমি সিড়ি ব্যাবহার করতে পারো। রিক্সা পরিহার করতে পারো। এতে করে তোমার বেশ কিছু টাকা যমে যাবে যাতে করে মাস শেষে তুমি একটা গ্রাফিক্স কার্ড কিনতে পারবে, এবং একদম নতুন যে গেইমটি এসেছে সেটি তোমার কম্পিউটারে খেলতে পারবে। আর যদি গেইম খেলতে না চাও, মাস শেষে টাকাগুলো আমাকে দিয়ে দিতে পারো। আমাদের একটা ফেইসবুক গ্রুপ আছে, নাম FootPrints যার কাজ হলো স্ট্রিট চাইল্ডদের সাহায্য করা। আমি তোমার টাকা গুলো সেখানে খরচ করতে পারি।

৩. খাবার তালিকা নির্ধারণ: তুমি যেহেতু  কম খাচ্ছো এবং নিয়মিত ব্যায়াম করছো, সুতরাং তোমার মেদ বার্ণ হচ্ছে, এখন সেটি যদি আরো ইফিসিয়েন্ট করতে চাও তাহলে তুমি তোমার খাবার তালিকা নির্ধারণ করতে পারো। খাবারের মধ্যে ভ্যারিয়েশান আনতে পারো। কিছু কিছু খাবার আছে যেগুলো অপ্রয়োজনীয় ক্যালোরি যোগ করে। তুমি সেগুলো পরিহার করতে পারো। ড্রিংকস পরিহার করা খুব ভাল আইডিয়া। আইসক্রিম আমার খুবই পছন্দ। সপ্তাহে যদি প্রতিদিন আইসক্রিম খাও, তাহলে সেটি কমিয়ে আন। মাখন, পনির, তেল ও ঘি সমৃদ্ধ খাবার একেবারেই কমিয়ে দেয়া উচিত।

আপাতত এইটুকুই। আশাকরি তুমি ইতিমধ্যে মেদ ভুঁড়ি কমিয়ে ফেলার প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে ফেলেছো। অল দ্যা বেস্ট।

2 thoughts on “উদরগত মেদ অপসারণ করার কিছু উপায়।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s